Logo
,


সংবাদ শিরোনাম:
«» মুলাদীতে ৩য় শ্রেনীর স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ ॥ মামলা দায়ের «» কুলাউড়ায় রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার আওয়ামীলীগের কয়েকটি পরিবার! «» মাদারীপুরের অ্যাডভোকেট মহসিন একটু সাহায্যেই বেঁচে যাবে ভারতের মনিপাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন? «» চেয়ারম্যানের দায়িত্বে জিএম কাদের এরশাদের অবর্তমানে «» এরশাদ সত্যিই অসুস্থ-পরশু সিঙ্গাপুর যাবেন-অসুস্থতা নিয়ে নানা প্রচারণা… «» চলচ্চিত্রের অভিনেতা তানভীর হাসানের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার «» সাংবাদিকদের কল্যাণে কাজ করার অঙ্গীকার তথ্যমন্ত্রীর «» সফলতায় সংবাদ মাধ্যম এবং ওলামায়ে কেরামসহ সকলের দোয়া কামনা করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ শেখ মোহাম্মাদ আব্দুল্লাহ  «» চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ নেতাদের ফুলেল শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে «» জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের এবং মহাসচিব রাঙ্গাকে গনসংবর্ধনা

গাংনীতে জামাইয়ের মিথ্যা মামলায় শ্বশুর-শ্যালক জেল-হাজতে

গাংনীতে জামাইয়ের মিথ্যা মামলায় শ্বশুর-শ্যালক জেল-হাজতে

স্টাফ রিপোর্টার : মেহেরপুরের গাংনীর পল্লীতে জামাইয়ের মিথ্যা মামলায় নিরাপরাধ শ্বশুর-শ্যালক জেল হাজতে রয়েছেন। ঝগড়া-ঝাটির জের ধরে জামাই তার ১ম স্ত্রী আকতার বানুকে আঘাত করে হাত ভেঙ্গে দিলেও নিজের অপরাধ ঢাকতে ২য় পক্ষের শ্বশুর-শ্যালককে আসামী করে মিথ্যা মামলা দিয়ে পুলিশে দিয়েছে। এরকম ঘটনার অভিযোগ পেয়ে গাংনী উপজেলার তেঁতুলবাড়ীয়া ও মথুরাপুর গ্রাম ঘুরে প্রকৃত দোষীকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সীমান্তবর্তী মথুরাপুর গ্রামের হারান আলীর ছেলে লোকমান হোসেনের সাথে প্রেমজ সম্পর্ক সূত্র ধরে পার্শ্ববর্তি তেঁতুলবাড়ীয়া গ্রামের জামাত আলীর মেয়ে ময়না খাতুনের বিয়ে হয়। সে সময় লোকমানের ১ম স্ত্রী আকতার বানুর ভয়ে সে ২য় স্ত্রীকে ঘরে তুলতে পারেননি। অথচ স্ত্রীর ভরণ-পোষণ না দিলেও মাঝে-মধ্যে শ্বশুর বাড়ি গিয়ে ময়নার সাথে সম্পর্ক বজায় রাখতো।

অভিযোগকারী ময়না খাতুন জানান, বাবার বাড়ীতে ২ টি বছর পার করলেও কারণে-অকারণে নিযার্তন মুখ বুঝে সহ্য করে আসছি। আমাকে ভালবেসে ২য় বিয়ে করে ২ বছর ধরে নানা ভাবে নির্যাতন করে আসছে। কখনও মুরোদ হয়নি আমাকে নিয়ে সংসার করা। কষ্ট সহ্য করলেও বাবা-মাকে বা বিষয়টি প্রতিবেশীকেও জানায়নি।কিছুদিন আগে আমাকে বেদম মারপিট করে হাত-ভেঙ্গে দিয়েছে। প্রতিবাদ করলে বাবা-মাকেও হত্যার হুমকি দেয়। আমি কি এই অন্যায়ের বিচার পাবো না।

মেয়ের নির্যাতন সইতে না পেরে বাবা জামাত আলী আদালতে (কোর্টে) মামলা করলেও তার সঠিক বিচার পাইনি। বিভিন্ন সময় সালিশ-বৈঠক হলেও জামাই লোকমানের ভাড়া করা মাস্তান ও গ্রামের ক্ষমত্াসীনদের হুমকিতে তাও ভেস্তে গেছে।

মাস খানেক আগে লোকমান তার ১ম স্ত্রী আকতার বানুকে মেরে হাত ভেঙ্গে দিলেও স্ত্রীকে হত্যার হুমকি দিয়ে নিজের দোষ অন্যের ঘাড়ে চাপাতে স্ত্রী আকতার বানুকে বাদী সাজিয়ে (দ্বিতীয় স্ত্রীর বাবা) শ্বশুর-জামাত আলী (৫৫) ও শ্যালক টুটুল (২২)-এর নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। যার গাংনী থানায় মামলা নং- জি.আর ৫৫/১৮ ধারা-৩২৩/৩২৫/৩০৭/৩৭৯ দঃ বিঃ তাং-২৩-০৩-১৮ তদন্ত অফিসার এসআই আমিনুল ইসলাম, ঘটনার তারিখ-০৭-০৩-১৮ ইং ।

গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্েরর আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. এমকে রেজা জানান, আকতার বানুর শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের দাগ রয়েছে। এছাড়া তার গলা টিপে ধরায় ক্ষত হয়েছে। তাকে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। লোকমান হোসেনের প্রতিবেশী ও নিকটাত্মীয়দের নিকট থেকে জানা গেছে, জামাত ও টুটুল একবারেই নির্দোষ। তাদের মিথ্যা মামলায় গত ১ এপ্রিল,১৮ ইং তারিখে আদালতে হাজির করলে তাদের বিনা দোষে অদ্যাবধি ১২ দিন হাজত বাস করছে।ইতোমধ্যেই গ্রামবাসী নির্দোষ জামাত আলী ও টুটুলকে মামলা থেকে অব্যাহতি ও হাজত থেকে ছেড়ে দিতে পুলিশ সুপার বরাবর গণ স্বাক্ষর সম্বলিত আবেদন করেছেন।

গাংনী থানার ওসি হরেন্দ্রনাথ সরকার (পিপিএম) জানান, বিষয়টি খোঁজ-খবর নিয়ে মিথ্যা মামলা কারীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের,তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Skip to toolbar