• শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৯:১২ অপরাহ্ন
শিরোনাম
সকল সাংবাদিকদের আস্তা জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা,, কুমিল্লায় ডিম ব্যাবসায়ীদের খপ্পরে পড়ে আটকে গেলো অবৈধ কোল্ডস্টোরেজ মালিক রা। আমাকে যদি ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেন,এই সদর দক্ষিন উপজেলা মাদক মুক্ত করবো ইনশাআল্লাহ। সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে বরুড়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলন। চট্রগ্রাম জয় করে ৭টি মেডেলে নিয়ে এলো লাকসাম সিতোরিউ কারাতে দো: এসোসিয়েশন” পক্ষপাতিত্বের অভিযোগে বরুড়া থানা”র ওসি প্রত্যাহার জামালপুরে অভ্যন্তরীণ বোরো সংগ্রহ অভিযান শুরু  বকশীগঞ্জে পানিতে ডুবে শিক্ষার্থীর মৃত্যু  ইসলামপুরে ৪ সন্তানের জন্ম দিলেন খুশি বেগম মেলান্দহে সৌদি প্রবাসীর স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার, পরিবারের অভিযোগ হত্যা

জামালপুরে নৌকার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর মতবিনিময়

71Times / ৩৬৫৯ Time View
Update : শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর, ২০২৩

জামালপুরে নৌকার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর মতবিনিময়
মো. আলমগীর, জামালপুর।
জামালপুর-৫ সদর আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী প্রচার কেন্দ্র ভাংচুর, কর্মী-সমর্থকদের ভয়ভীতি প্রদর্শন, আচরণবিধি লঙ্ঘনসহ নানা অভিযোগ এনেছেন ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা রেজাউল করিম রেজনু সিআইপি।
শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) দুপুরে শহরের তমালতলায় জেলা আওয়ামী লীগের প্রথম কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব অভিযোগ আনেন।
মতবিনিময় সভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করিম রেজনু বলেন, নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ নিশ্চিত পরাজয় জেনে তাঁর কর্মীসমর্থকদের দিয়ে ঈগল প্রতীকের কেন্দ্র ভাংচুর করছেন। তাঁরা ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। ঈগল প্রতীকের কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানিও করা হচ্ছে।
রেজনু অভিযোগ করে আরও বলেন, সাবেক আমলারা আবুল কালাম আজাদের নির্বাচনী প্রচারণায় এসে প্রকাশ্যে নৌকা মার্কায় ভোট চাইছেন। মাদারগঞ্জ আসনের প্রার্থী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাঁর নির্বাচনী এলাকা বাদ দিয়ে সদরে অবস্থান করছেন ও ভোট চাইছেন। সদর উপজেলার বিভিন্ন নির্বাচনী কেন্দ্রে মির্জা আজমসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করছেন। ইতোমধ্যেই তারা ঈগলের বেশ কয়েকটি প্রচারকেন্দ্র ভাংচুর করেছেন। ঈগলের সমর্থকের বাড়িতে হামলা করে লুটপাট চালিয়েছেন। এসব বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দিলেও তিনি কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি।
রেজনু বলেন, এসব ঘটনায় সদর থানার ওসি মো. মহব্বত কবীর নিরপেক্ষ ভূমিকা না রেখে নৌকার পেছনে কাজ করছেন। তাই আমরা তাঁর প্রত্যাহার চাই। একই সঙ্গে জামালপুর সদর আসনে নির্বাচনী পরিবেশ ইতোমধ্যেই বিঘ্নিত হয়েছে উল্লেখ করে তিনি নির্বাচনী কেন্দ্রে সেনা মোতায়েনসহ বিদেশি পর্যবেক্ষক অবস্থানের দাবি জানান।
মতবিনিময় সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আকন্দ বাবু, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মনু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাকসুদ বীন জালাল প্লাবনসহ জেলার প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর

Archives