,


সংবাদ শিরোনাম:

বরুড়াকে কুমিল্লা জেলায় রেখে কুমিল্লাকে বিভাগ ঘোষণা করার দাবিতে চলছে গণস্বাক্ষর।

অচিরেই হতে যাচ্ছে কুমিল্লা বিভাগ। প্রথমে ময়নামতি নামে হওয়ার কথা থাকলেও পরবর্তীতে কুমিল্লাবাসীর আন্দোলনের মুখে কুমিল্লা নামেই বিভাগ বাস্তবায়ন করা হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়। বাস্তবায়ন হলে এটি হবে দেশের নবম বিভাগ। বিভাগ হতে গেলে প্রয়োজন কমপক্ষে পাঁচটি জেলার। কিন্তু কুমিল্লা বিভাগের রুপরেখা অনুযায়ী বর্তমানে এর অন্তর্ভূক্ত হবে এমন জেলা আছে চারটি । প্রয়োজন নতুন একটি জেলার। বর্তমানে কুমিল্লা বিভাগের অধীনে প্রস্তাবিত জেলাগুলো হল, কুমিল্লা, চাঁদপুর, নোয়াখালী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া। যদিও ইতোপূর্বে ময়মনসিংহ বিভাগ গঠিত হয়েছে চারটি জেলা নিয়েই।আর, এই প্রস্তাবনাকে কেন্দ্র করে নতুন করে জেলা হতে যাচ্ছে লাকসাম। নতুন করে হতে যাওয়া এই জেলা মোট পাঁচটি উপজেলার সমন্বয়ে হতে যাচ্ছে। প্রাথমিকভাবে এই পাঁচটি উপজেলা হচ্ছে লাকসাম, নাঙ্গলকোট, শাহরাস্তি, মনোহরগঞ্জ ও বরুড়া।

কিন্তু বরুড়াবাসী থাকতে চায় না গঠিত হতে যাওয়া লাকসাম জেলায়। এ লক্ষ্যে আজ সকাল ১০টায় বরুড়া বাজারে চলছে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি। এবং এই গণস্বাক্ষর কর্মসূচি চলবে বরুড়া উপজেলায় প্রতিটি ইউনিয়নে এবং আগামীকাল কাল ১০ টায় বরুড়া বাজার জিরু পয়েন্ট মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে ডাক দিয়েছে বরুড়াবাসী।এই সময় আমরা বরুড়াবাসী সংগঠনের সম্মানিত আহ্বায়ক ও সামাজিক ব্যক্তিত্ব রোটাঃবশিরুল ইসলাম সিরাজী
বলেন ‘বরুড়াকে কুমিল্লা জেলা থেকে বাদ দিয়ে অন্য কোনো নতুন জেলায় অন্তর্ভূক্তি করা যাবে না এবং কুমিল্লা বিভাগ হলে কুমিল্লা জেলার অধীনে থেকে বরুড়া উপজেলার সকল কার্যক্রম করা হোক। প্রয়োজনে, বরুড়া উপজেলাকে নতুন জেলা হিসেবে ঘোষণা দেয়া হোক। তবুও আমরা অন্য জেলায় যেতে চাই না।সামাজিক ব্যাক্তিত্ব আলহাজ্ব মোঃ আব্দুল মমিন সওদাগর বলেন, ‘বরুড়াকে নব্য গঠিত হতে যাওয়া লাকসাম জেলার অধীনে নেওয়ার পাঁয়তারা চলছে, এমন কিছু হলে তীব্র আন্দোলন করা হবে। কুমিল্লা আমাদের প্রাণের স্পন্দন।’

এদিকে লাকসাম জেলার অন্তর্ভূক্ত হতে চায় না শাহরাস্তিবাসীও। এ নিয়ে জনমনে হতাশা ও ক্ষোভ দেখা গেছে। শাহরাস্তিবাসী থাকতে চায় আগের জেলা ইলিশের বাড়ি বলে খ্যাত চাঁদপুরেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের,তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।

Developed By H.m Farhad

Skip to toolbar