Logo
,


সংবাদ শিরোনাম:
«» মুলাদীতে ৩য় শ্রেনীর স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ ॥ মামলা দায়ের «» কুলাউড়ায় রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার আওয়ামীলীগের কয়েকটি পরিবার! «» মাদারীপুরের অ্যাডভোকেট মহসিন একটু সাহায্যেই বেঁচে যাবে ভারতের মনিপাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন? «» চেয়ারম্যানের দায়িত্বে জিএম কাদের এরশাদের অবর্তমানে «» এরশাদ সত্যিই অসুস্থ-পরশু সিঙ্গাপুর যাবেন-অসুস্থতা নিয়ে নানা প্রচারণা… «» চলচ্চিত্রের অভিনেতা তানভীর হাসানের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার «» সাংবাদিকদের কল্যাণে কাজ করার অঙ্গীকার তথ্যমন্ত্রীর «» সফলতায় সংবাদ মাধ্যম এবং ওলামায়ে কেরামসহ সকলের দোয়া কামনা করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ শেখ মোহাম্মাদ আব্দুল্লাহ  «» চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ নেতাদের ফুলেল শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে «» জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের এবং মহাসচিব রাঙ্গাকে গনসংবর্ধনা

সদরপুর-ভাঙ্গা-চরভদ্রাসন বিভক্ত আওয়ামী লীগ,নিক্সন চৌধুরী এমপি-সাবেক এমপি কাজী জাফর বেকায়দায়

( আওয়ামী লীগের কোন্দল ফের কাজে লাগাতে চায় নিক্সন চৌধুরী )
ফরিদপুর-৪ (সদরপুর-ভাঙ্গা-চরভদ্রাসন) আসনে আওয়ামী লীগ স্পষ্টতই দুই ভাগে বিভক্ত। ফলে আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের শত্রু আওয়ামী লীগ এমনটাই মনে করেন রাজনৈতিক সচেতন মহল।

এ আসনে একাদশ জাতীয় নির্বাচনে ত্রিমুখী লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। দশম জাতীয় নির্বাচনে এ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হন মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী। ওই নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নেওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নিক্সন চৌধুরী হারিয়ে দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, হেভিওয়েট প্রার্থী, সাবেক এমপি কাজী জাফর উল্লাহকে। কাজী জাফর উল্লাহকে হারিয়ে চমক দেখানো স্বতন্ত্র প্রার্থী মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী এবারও মাথা ব্যথার কারণ হতে পারে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর। গত নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে হারের লজ্জা এবার আর নিতে চান না আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতারা। যদিও এ আসনের তিনটি উপজেলাতেই আওয়ামী লীগের গ্রুপিং বেশ চাঙ্গা। তাছাড়া আওয়ামী লীগের বড় একটি অংশ স্বতন্ত্র এমপি নিক্সন চৌধুরীর সঙ্গে থাকায় কিছুটা বেকায়দা রয়েছে আওয়ামী লীগ। তাছাড়া এ আসনের তিনটি উপজেলার মধ্যে নৌকার ভোট ব্যাংক হিসেবে পরিচিত ভাঙ্গা উপজেলায় আওয়ামী লীগে বিদ্রোহ দেখা দিয়েছে।

গত নির্বাচনে বিএনপি ভোট বর্জন করায় এ আসনে কোনো প্রার্থী ছিল না তাদের। তবে এবারের নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী তালিকায় রয়েছে কয়েকজনের নাম। আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী পাল্লা দিয়েই চালিয়ে যাচ্ছেন তাদের প্রচারণা। স্থানীয় ভোটারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আগামী নির্বাচনে এ আসনে লড়াই হবে ত্রিমুখী। বিএনপি-আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সঙ্গে লড়াই হবে স্বতন্ত্র প্রার্থীর। তবে আওয়ামী লীগ-বিএনপির প্রার্থী বাছাইয়ে ভুল হলে ফের নির্বাচিত হতে পারেন স্বতন্ত্র প্রার্থী এমনটাই মনে করছেন ভোটাররা। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী পুরোদমে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ এখনো এককভাবে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তবে দলের পক্ষে মনোনয়ন চাইবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি (সম্প্রতি কমিটি থেকে বহিষ্কৃত) কাজী হেদায়েত উল্লাহ সাকলায়েন। বিএনপির হয়ে মাঠে আছেন জেলা বিএনপির সভাপতি, চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা জহিরুল হক শাহজাদা মিয়া, সাবেক এমপি ইয়াসমিন আরা হক, ভাঙ্গা উপজেলা বিএনপির সভাপতি খন্দকার ইকবাল হোসেন সেলিম, জাসাস কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি শাহরিয়ার ইসলাম শায়লা। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জোর প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন বর্তমান এমপি মজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী। ফরিদপুর-৪ (ভাঙ্গা-সদরপুর-চরভদ্রাসন) আসনটি আওয়ামী লীগের ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত। বিগত দিনের নির্বাচনগুলোতে এ আসনে বেশির ভাগই জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা। তবে দলীয় কোন্দলের কারণে আওয়ামী লীগের ঘাঁটিতে ভোট বাড়িয়েছে বিএনপি। গত নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নেওয়া এবং আওয়ামী লীগের দলীয় কোন্দলের সুযোগ নিয়ে জয়ী হয়েছিলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী নিক্সন চৌধুরী

30,826 total views, 1 views today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের,তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Skip to toolbar