,


সংবাদ শিরোনাম:

স্ত্রীর কাটা মাথা নিয়ে থানায় হাজির স্বামী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্ত্রীকে গলাকেটে হত্যার পর কাটা মস্তক হাতে নিয়ে থানায় হাজির হয়েছে এক ব্যক্তি। বর্বর এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের উত্তর প্রদেশে।

বর্বর ওই স্বামীর নাম নরেশ। সে পেশায় টিভি মেকানিক। নেশাগ্রস্ত অবস্থায় রোববার রাতে সে এই হত্যাকাণ্ড ঘটায়। স্ত্রী মদপানে বাধা দেয়ায় সে তাকে খুন করে। তবে নরেশের অভিযোগ তার স্ত্রীর পরকীয়ায় লিপ্ত ছিল।

টিভি মেকানিক নরেশ ১৭ বছর আগে শান্তিকে বিয়ে করে। তাদের তিন মেয়ে ও এক ছেলে আছে। নরেশ নেশাগ্রস্ত। প্রায়ই সে মদ পান করে। আর এ নিয়েই তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ চলছিল।

রোববার রাতে নিজ ঘরে বসে মদ পান করছিলো নরেশ। ওই সময় তার স্ত্রী তাকে মদ খেতে বাধা দেন। এ নিয়ে ঝগড়ার এক পর্যায়ে দা নিয়ে স্ত্রীর মাথায় কোপ দেয় সে। পরদিন সকালে ওই কাটা মাথা নিয়েই থানায় হাজির হয়।

সোমবার সকালে স্ত্রীর কাটা মাথা হাতে নিয়ে আগ্রার হারি পর্বত পুলিশ স্টেশনে যায় নরেশ। সেখানে গিয়ে পুলিশের কাছে স্ত্রীকে হত্যা করার কথা স্বীকার। নরেশের দাবি, স্ত্রীকে হত্যার সময় সে মদ্যপ ছিল না। তার স্ত্রী পরকীয়া করত, এ কারণে তাকে খুন করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের,তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।

Developed By H.m Farhad