,


সংবাদ শিরোনাম:
«» নূরুল কোরআন মাদ্রাসা,আরিচপুর ওয়াজ ও দোয়া মাহফিল «» জাতীয় পার্টি নৌকার ভোট প্রচারে মাঠে সাহারা খাতুরেন সাথে আলোচনায় «» ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী,পথে পথে নির্বাচনী পথসভায় শেখ হাসিনা «» ঢাকা-১৮ আসনে ঝুলছে সাহারা খাতুনের পোস্টার,ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী স্বপন শাহ কবির মাজার জিয়ারতে… «» শেখ হাসিনা কাঙালিনী সুফিয়ার পাশে উন্নত চিকিৎসার উদ্যোগ… «» মাদারীপুর এমপি নাছিমের মায়ের দোয়া নিলেন বিএনপির প্রার্থী খোকন নির্বাচনী প্রচারণায় «» প্রচারণায় তুঙ্গে সাজ্জাদ হোসেন সিদ্দিকীর ধানের শীষে ভোট ও দোয়া চেয়ে ছুটছেন… «» আরেকবার ভোট দিয়ে দেশ সেবার সুযোগ দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা «» অনলাইন নিউজ পোর্টাল ৫৪টি বন্ধ-খুলে দিতে বিক্ষোভ সমাবেশে আল্টিমেটাম «» নিউজ পোর্টাল ৫৮ ওয়েবসাইট খুলে দেওয়া হয়েছে: বিটিআরসি

নোংরা পরিবেশ ও নানা অনিয়মে কুমিল্লার বরুড়ায় হসপিটালের চিকিৎসা কার্যক্রম বন্ধ
নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ চারিদিকে নোংরা পরিবেশ, ম্যাঝেতে স্যাঁতস্যাতে অবস্থা, আশপাশে ছড়ানো ছিটানো অপরিচ্ছন্ন কাপড়-চোপড়; দেখে মনে হয় যেনো পরিত্যাক্ত কোনো বসত-ভিটা। কিন্তু না! কুমিল্লার বরুড়ায় দম বন্ধ পরিবেশে এমনি একটি অস্বাস্থ্যকর ঘরে চালানো হচ্ছিল চিকিৎসা কার্যক্রম। বাহিরে ঝুলানো সাইন বোর্ডে লিখা ‘লগ্নসার কে. আর. হসপিটাল।’
বুধবার দুপুরে আকস্মিক হাসপাতালটি পরিদর্শনে যান কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডা. মুজিব রাহমান ও ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শাহাদাৎ হোসেন । অপরিষ্কার ও অপরিচ্ছন্ন পরিরেশ, নোংরা বিছানায় শুয়ে-বসে থাকা রোগীদের অবস্থা দেখে আঁতকে উঠেন দুই কর্মকর্তা। শেষে কথিত ওই হাসপাতালটির সকল কার্যক্রম বন্ধ করে দেন তারা।
বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা সিভিল সার্জন বলেন, নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বুধবার দুপুরে বরুড়ার বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি হাসপাতাল পরির্দশনে যাই। একপর্যায়ে লগ্নসার কে.আর. হসপিটালের গিয়ে চোখে পড়ে চিকিৎসার নামে ‘অপকর্মের’ এসব দৃশ্য। রোগীদের সাথে কথা বলে জানতে পারি চিকিৎসায় অবহেলা ও অযত্নের কথা। পরে হাসপাতালটির সকল কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ প্রদান করি।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দীর্ঘদিন যাবৎ দালালদের তৎপরতার মাধ্যমে হাসপাতালটির কার্যক্রম চালানো হচ্ছিল। প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চল থেকে অসহায় রোগীদের জিম্মি করে তারা এখানে নিয়ে আসতো। কিন্তু চিকিৎসা সেবার নামে কিছুই জুটতো না রোগীদের কপালে।
এ হসপিটালটি ছাড়াও জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে দালালদের দৌরাত্ম্য বন্ধে কার্যকর পদপক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন মুজিব রাহমান। এছাড়াও নিয়মিত হাসপাতাল পরিদর্শন এবং অনিয়মের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবেও বলেও জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের,তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Skip to toolbar