,



সংবাদ শিরোনাম:
«» প্রচারণায় তুঙ্গে সাজ্জাদ হোসেন সিদ্দিকীর ধানের শীষে ভোট ও দোয়া চেয়ে ছুটছেন… «» আরেকবার ভোট দিয়ে দেশ সেবার সুযোগ দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা «» অনলাইন নিউজ পোর্টাল ৫৪টি বন্ধ-খুলে দিতে বিক্ষোভ সমাবেশে আল্টিমেটাম «» নিউজ পোর্টাল ৫৮ ওয়েবসাইট খুলে দেওয়া হয়েছে: বিটিআরসি «» মাদারীপুর ১ (শিবচর বিএনপির সবাই দলীয় ভেদাভেদ ভুলে পক্ষে সাজ্জাদ হোসেন সিদ্দিকী লাভলুর «» নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে আপিলে প্রার্থীতা ফিরে পেল মাদারীপুর-১ আসনের জাতীয় পাটির জহিরুল ইসলাম মিন্টু «» জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে“সংবিধান সংরক্ষণ দিবসের আলোচনা সভা আগামীকাল «» অচিরেই সম্প্রচারে আসছে ‘ হ্যাপিনেস টেলিভিশন… «» নির্বাচনে প্রচারণা ও জনসংযোগে ৩০০ আসনেই ছাত্রলীগ থাকবে: ছাত্রলীগ সভাপতি শোভন «» ঢাকা-১৮আসনের জাতীয় পার্টি অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন ঘিরে নৌকায় ভোট প্রচারে মাঠে

কুমিল্লা-৮(বরুড়া) আসনে জাপার এমপি-আওয়ামী লীগের অ্যাডভোকেট কামরুল,নজরুল,মিয়াজী,বিএনপির সুমন ও বাদরু মাঠে সবর

কুমিল্লা-৮ (বরুড়া) আসনের বর্তমান এমপি জাতীয় পার্টির অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন। এখানে আওয়ামী লীগ ও জাপার মধ্যে বর্তমানে সাপে নেউলে সম্পর্ক বিরাজ করছে। বিশেষ করে চলতি মাসে জাপা এমপির গাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটে। এজন্য আওয়ামী লীগকে দায়ী করা হয়েছে। এদিকে এখানে আওয়ামী লীগের তিনজন মনোনয়নপ্রত্যাশী রয়েছেন। এ ছাড়া বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশী দুজন।

আওয়ামী লীগ : এই আসনে আওয়ামী লীগ তিন ধারায় বিভক্ত। এক গ্রুপে নেতৃত্ব দিচ্ছেন সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল। আরেক গ্রুপে আছেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের শিল্পবিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক মিয়াজী। অপর গ্রুপে আছেন এই আসন থেকে একাধিকবার নির্বাচিত আওয়ামী লীগ দলীয় এমপি প্রয়াত আবদুল হাকিমের ছেলে ও কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। এই আসন থেকে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ দলীয় অন্যতম মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন সাবেক এমপি নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল। কিন্তু রাজনৈতিক পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে আওয়ামী লীগ আসনটি ছেড়ে দেয় জাতীয় পার্টিকে। মহাজোট প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পায় কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা জাপার সভাপতি অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন। আর বিদ্রোহী প্রার্থী হন অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। তখন সাবেক এমপি নজরুল গ্রুপ জাপার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করে। নির্বাচনে বিজয়ী হন জাপার অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন। বর্তমানে নজরুলকে আবারও শক্ত প্রার্থী বলে ধারণা করা হচ্ছে। আবারও নজরুল প্রার্থী হতে পারেন। নজরুলের সমর্থকরা বলছেন, এবার আর জাতীয় পার্টিকে ছাড় দেওয়া হবে না। নৌকার মাঝি হবেন নজরুল।

বিএনপি : এখানে ২০-দলীয় জোটের মনোনয়নপ্রত্যাশী কেন্দ্রীয় বিএনপির আন্তর্জাতিক সম্পাদক, জেলা সহ-সভাপতি ও সাবেক এমপি জাকারিয়া তাহের সুমন। এখানে উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, অধিকাংশ ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপি থেকে নির্বাচিত। এখানে কেন্দ্রীয় বিএনপির নেতা মোরতাজুল করিম বাদরুও মনোনয়নপ্রত্যাশী।

জাতীয় পার্টি : বর্তমান এমপি অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন দলের একক প্রার্থী। তার ব্যক্তি ইমেজের কিছু নিজস্ব ভোট আছে। তিনি আরেকবার মহাজোটের মনোনয়ন চাইছেন। মহাজোটের প্রার্থী না হতে পারলেও তিনি জাপা থেকে নির্বাচন করবেন বলে জানা গেছে।

নাসিমুল আলম চৌধুরী নজরুল বলেন, আমরা পরিশ্রম করে মিলন সাহেবকে এমপি বানিয়েছি। তিনি আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের মূল্যায়ন করেননি। দলকে সুসংগঠিত করতে কাজ করে যাচ্ছি। আশা করছি জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার কাজ মূল্যায়ন করবেন। নুরুল ইসলাম মিলন এমপি ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন দাবি করে তিনি মহাজোটে মনোনয়ন পাবেন বলেও আশা করেন
bd-pratidin.com
মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

3,750 total views, 2 views today

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের,তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।
Skip to toolbar