,


সংবাদ শিরোনাম:
«» আসুন প্রকৃত বাঙ্গালী হই ! সাংবাদিক রোকন «» নেত্রকোনায় ইউপি চেয়ারম্যান সাময়িক বরখাস্ত। «» মুন্সীগঞ্জে লবনের দাম বৃদ্ধির গুজবে হাট বাজারে লবন কেনার ধুম । দোকান গুলোতে লবন শূন্য ৪৫ জন দোকানিকে কে জরিমানা «» বি পি এল কে কোন দলে, জানলে অবাক হবেন। «» স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বেড়ে ওঠা সম্ভাবণাময় ক্ষুদে কবি মুহাম্মদ সবুজ হোসেন «» পেঁয়াজের পর এবার চালের বাজারে আগুন «» মুরাদনগরের ‘বাঙ্গরাবাজার প্রেসক্লাব’ গঠিত জাহাঙ্গীর আলম ইমরুল সভাপতি, আবুল কালাম আজাদ সাধারণ সম্পাদক «» বাগেরহাট জেলার মোল্লারহাট থানাধীন মাদ্রাসাঘাট এলাকা হতে ১৭৭ পিচ ইয়াবাসহ ০১ জন ইয়াবা ব্যবাসয়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬। «» উত্তরা ১২ নং সেক্টর বালুর মাঠ বস্তিতে মাদক-দখল বাণিজ্যে কালাম অপ্রতিরোধ্য! «» জাককানইবি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তথ্য গোপনের অভিযোগ

লিয়াকত শিকদারের ক্যাডার টিপু স্বেচ্ছা সেবক লীগের সা.সম্পাদক প্রার্থী

স্বেচ্ছা সেবক লীগের সা.সম্পাদক প্রার্থী লিয়াকত শিকদারের ক্যাডার টিপু

ছাত্রলীগে কেনা-বেচা ও হাওয়া ভবনের সঙ্গে সম্পর্ক রাখার দায়ে খোদ আওয়ামী লীগ সভাপতির কাছে অভিযুক্ত ও ছাত্রলীগে লিয়াকত সিন্ডিকেটের হোতা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি লিয়াকত শিকদারের খোদ শিষ্য বলে পরিচিত শেখ সোহেল রানা টিপু এবার স্বেচ্ছা সেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হিসেবে নানা জায়গায় ধর্না দিচ্ছে বলে জানা গেছে। তার পক্ষে মাঠে নেমেছেন লিয়াকত শিকদারও। শেখ সোহেল রানা টিপু বর্তমানে স্বেচ্ছা সেবক লীগের যুগ্ম সম্পাদক। এক সময়ে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি হয়েছিলেন লিয়াকত শিকদারের ক্যাডার হিসেবে। লিয়াকত শিকদারই তাকে ওই পদে বসিয়েছিলেন।
বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি থাকাকালীন নানা অভিযোগ ওঠে শেখ সোহেল রানা টিপুর বিরুদ্ধে। ওই সময়ে তিনি অস্ত্র মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন বলে ওই সময়ের একাধিক জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশিত হয়। ২০০৯ সালের ৮ আগস্ট অস্ত্র ও ফেনসিডলসহ রাজবাড়ির পাংশা থানা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন টিপুর ছোট ভাই ইমন। সে সময়ে রিমান্ডে টিপুর ভাই ইমন স্বীকার করেন, ইমন তার ভাই শেখ সোহেল রানা টিপুর ছত্রচ্ছায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় অস্ত্র মাদক ব্যবসা পরিচালনা করেন। এ নিয়ে ওই সময়ে টিপুকে নিয়ে বিব্রত অবস্থায় পড়ে ছাত্রলীগ।
বিশ্ববিদ্যলয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি থাকাকালীন সময়ে অনৈতিক কাজের অভিযোগ ওঠে টিপুর বিরুদ্ধে। সে সময়ে বিভিন্ন ছাত্রী হলের মেয়েদেরকে কমিটিতে পদ পাইয়ে দেয়ার আশ্বাস দিয়ে তাদের সাথে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এ সময়ে দেখা গেছে সন্ধ্যার পর ছাত্রীদের নিয়ে ঘুরতে বের হতেন তিনি। অভিযোগ ‘ম’অদ্যাক্ষরের একজন ছাত্রী নেত্রীর সঙ্গে দীর্ঘদিন লিভটুগেদার করেছেন তিনি। ওই মেয়েটির বাড়ি টিপুর নিজ এলাকা পাংশা উপজেলায়। বিয়ের আশ্বাস দিলেও শেষ পর্যন্ত ওই মেয়েকে তিনি বিয়ে করেননি। ওই ছাত্রী নেত্রী ঘটনাটি জানানোর জন্য একাধিকবার আওয়ামী লীগ সভাপতির কাছে যেতে চাইলেও লিয়াকত সিন্ডিকেটের ক্যাডারদের কারনে পারেনি। শেষ পর্যন্ত হালছেড়ে মেয়েটি নিজ এলাকায় চলে যান।
অভিযোগ ওঠে টিপু বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি থাকালীন সময়ে যখন আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ছিলো সে সময়ে ছাত্রদলের সভাপতি সুলতান টুকুকে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবশ করিয়ে দেয়ার কথা বলে তারেক জিয়ার কাছ থেকে ১৬ লাখ টাকা নেয়। টিপুর কথা মোতাবেক টুকু বিশ্ববিদ্যালয়ে গেলে ছাত্রলীগের সাধারণ কর্মীরা তাকে প্রতিহত করে। পরে টিপু বাধ্য হয়ে তারেক জিয়ার কাছে ৮ লাখ টাকা ফেরত দিয়ে আসে।
টিপু বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি থাকাকালীন সময়েই আওয়ামী লীগ ক্ষমতা থেকে বিদায় নেয এবং বিএনপি ক্ষমতায় আসে। সে সময়ে লিয়াকত শিকদারের মাধ্যমে হাওয়া ভবনের সঙ্গে গভীর সম্পর্ক গড়ে তোলেন। যে কারনে এখন পর্যন্ত লিয়াকত শিকদারকে দলের কোন পদ দেননি শেখ হাসিনা।
আগ্রনী ব্যাংক থেকে নিয়ম লঙ্গন করেন ১৯৬ কোটি টাকা ঋন নিয়ে ভালুকায় একটি সোয়েটার ফ্যাক্টরী করেছেন সোহেল রানা টিপু। সম্প্রতি সময়ে টিপুর ব্যবসায়ী অংশিদারের রহস্যজনক মৃত্য হয়েছে। জানা গেছে অংশিদারের মৃত্যুর পর টিপু নিজেই পুরো ব্যবসা তার নিয়ন্ত্রনে নিয়েছেন। ২০০৯ সালের ১২ সেপ্টম্বর টিপুর বহিরাগত ক্যাডার রাজবাড়ির কালা সোহেল পাকিস্তানের তৈরি একটি বন্দুক নিয়ে ধরা পড়ে। পুলিশের কাছে সে স্বীকার করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জসিমউদ্দিন হলে টিপুর রুমে থেকেই সে অস্ত্র ব্যবসা করে।

( হমায়ন চৌধুরী – প্রতিবেদক)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রকাশিত সংবাদ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি,পাঠকের মতামত বিভাগে প্রচারিত মতামত একান্তই পাঠকের,তার জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়।

Developed By H.m Farhad